বাড়ির ছাদে মায়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দুর্দান্ত নাচ একরত্তি খুদে কন্যার, ভাইরাল ভিডিও

পুচকু মতো এক মেয়েকে তাঁর মায়ের সঙ্গে অসাধারণ ভঙ্গিমা সহকারে নাচ করতে দেখা যায়। ব্যাকগ্রাউন্ডে বাজতে শোনা যায় বাঙালির প্রিয় 'ধিতাং ধিতাং বোলে' গানটি।

সোশ্যাল মিডিয়ার জাল ছড়িয়ে রয়েছে বিশ্বজুড়ে। যার ফলে খুব সহজেই পৃথিবীর অপর প্রান্তের মানুষের সঙ্গেও এক ক্লিকে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়েছে। বিশ্বের অপর প্রান্তে ভিডিও সহজেই এই প্রান্তের মানুষ দেখার সুযোগ পাচ্ছেন। কোনো ফটো বা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যবহারকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারলেই হল, মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যেতে দেখা যায়।

প্রতিভা ভাষার বেড়াজাল মানে না, আর না জিজ্ঞাসা করে শিল্পীর পরিচয়। প্রতিভা প্রকাশে দক্ষতা প্রদর্শিত হলেই প্রশংসার অধিকারী হন শিল্পীরা। মানুষ আজকাল গানের ভাষা না জানলেও, সেই গানের বাক্যের অর্থ না জানলেও, সেই গান শোনেন ও সেই গানে নাচ করেন। এই নাচের ভিডিওগুলো সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশ্যে আসার পরে প্রশংসা পেলেই আরও বাকিদের নজরে চলে আসে। ফলস্বরূপ, অনেক সময়েই ভিডিওগুলো ভাইরাল হয়ে যেতে দেখা যায়।

সম্প্রতি এক নৃত্য প্রদর্শনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে। এই ভিডিওতে পুচকু মতো এক মেয়েকে তাঁর মায়ের সঙ্গে অসাধারণ ভঙ্গিমা সহকারে নাচ করতে দেখা যায়। ব্যাকগ্রাউন্ডে বাজতে শোনা যায় বাঙালির প্রিয় ‘ধিতাং ধিতাং বোলে’ (Dhitang Dhitang Bole) গান এবং এই গানেতেই দুই মা ও মেয়েকে খোলা আকাশের নিচে বাড়ির ছাদে দুর্দান্ত নাচ প্রদর্শন করতে দেখা যায়। ভিডিওটিতে দৃশ্যমান মহিলার পরণে দেখা যায় হলুদ রঙের ব্লাউজ ও লাল রঙের শাড়ি এবং খুদে কন্যার পরণে দেখা যায় কালো ব্লাউজ ও লাল-হলুদ রঙের ঘাগরা চোলি। দুইজনকেই খুব সুন্দরভাবে খোঁপা বেঁধে লাল রঙের ফুল পরিহিত অবস্থায় মনের আনন্দে নাচ করতে দেখা যায়।

ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে ‘পারমিতা এন্ড ব্রিওন্না’ (Paromita & Brionna) নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে। ভিডিওটির ভিউয়ার্সের সংখ্যা ৪.৬ মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে এবং লাইকের সংখ্যা ৮.৭ হাজার অতিক্রম করে ফেলেছে।